নৈতিকতার কারণে কেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী পদত্যাগ করবেন না? সাংবাদিক সম্মেলনে প্রশ্ন তুললেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী

নিজস্ব সংবাদদাতা, কোলকাতা; ১১ অগাস্টঃ

মমতা বন্দোপাধ্যায় ১৯৮৯ সালে লোকসভা ভোটে পরাজিত হবার তিন দিনের ভিতর দিল্লির সরকারি বাসভবন ছেড়ে ছিলেন নৈতিক দায় থেকে, ১৯৯২ সালে নরসিমহা রাও-এর মন্ত্রীসভা ছেড়েছিলেন নৈতিক কারণ দেখিয়ে , নৈতিক কারণ দেখিয়েই ২০১২ সালে ইউ পি এ সরকার ছেড়ে বেড়িয়ে এসেছিলেন, আজও তাঁর উচিত নৈতিক কারণে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর আসন থেকে পদত্যাগ করা; বৃহস্পতিবার কোলকাতার বিধান ভবনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এমনই দাবি করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী। অধীর বাবু বলেন, যাঁরা গ্রেফতার হচ্ছেন তাঁরা সকলেই বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর স্নেহধন্য নেতা-মন্ত্রী, তাই নৈতিক কারণেই তাঁর পদত্যাগ করা উচিত। এ প্রসঙ্গে অধীর বাবু তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে বলেন যে, এইসব গ্রেফতার পর্বের নেপথ্যে রয়েছে তৃণমূলের আভ্যন্তরীণ সংকট। অনুব্রত মন্ডলের গ্রেফতার প্রসঙ্গে অধীর বাবু বলেন, ন-নয় বার জেরা এড়িয়ে যাওয়ার পরেও তাকে গ্রেফতার করতে সি বি আই এত দেরি কেন করলো এটাই কংগ্রেসের মূল প্রশ্ন। এ প্রসঙ্গে অধীর বাবু বলেন, ইদানীং আদালতের রায়ের ফলেই সিবিআই – ইডি এত তৎপর হয়ে কাজ করতে বাধ্য হচ্ছে। উল্লেখ্য দেশ জুড়ে কংগ্রেস স্বাধীনতার গৌরব যাত্রা সংগঠিত করছে, এ রাজ্যেও সেই কর্মসূচী কিভাবে রূপায়িত হবে মূলত সে বিষয়েই বৃহস্পতিবার পশ্চিম প্রদেশ কংগ্রেসের পক্ষ থেকে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে অধীর বাবু বলেন যে, স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রকৃত গৌরবময় ইতিহাস তুলে ধরার লক্ষে তাঁরা রাজ্যের প্রতিটি জেলায় ৭৫ কিলোমিটার পদযাত্রার আয়োজন করেছেন, এই পদযাত্রা প্রতিটি ব্লকেই অনুষ্ঠিত করার তাঁদের লক্ষ বলে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি জানান। এই পদযাত্রাগুলিতে পাশাপাশি কেন্দ্র এবং এ রাজ্যের সরকারের শিল্প, কৃষি , কর্মসংস্থান এইসব ক্ষেত্রগুলিতে যে চরম ব্যর্থতা তাও মানুষের সামনে তুলে ধরা হচ্ছে বলে এদিন অধীর বাবু উল্লেখ করেন। তিনি বলেন আগামী ২৮ শে অগাস্ট সর্ব ভারতীয় কংগ্রেস কমিটির পক্ষ থেকে সারা দেশে অস্বাভাবিক বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগঠিত করা হবে, পশ্চিমবঙ্গেও কংগ্রেস কর্মীরা সেই আন্দোলনে অংশ নেবেন বলে তিনি উল্লেখ করেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.