১১ জন ধর্ষণকারী ও যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্তর মুক্তি গুজরাটের বিজেপি সরকারের বদান্যতায়

শুভ মিত্র

বিলকিস বানোকে মনে আছে? গুজরাটের এক প্রত্যন্ত গ্রাম লিমখেদা তালুকা। ২০০২ সালের ৩ মার্চ গোধারা পরবর্তী দাঙ্গা চলছে সারা গুজরাট রাজ্য জুড়ে।তখনই পাঁচ মাসের অন্তসত্ত্বা বিলকিস বানো ধর্ষিত হলেন ১১ জন উচ্চবর্ণের দুস্কৃতিদ্বারা।তার পরিবারের ৭ সদস্যকে হত্যা করা হয়।দূবছর পর অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়। ২০০৮ সালে সিবিআই এর বিশেষ আদালত ঐ ১১ জনে আসামীকে দোষী সব্যস্ত করে ও তাদের যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দেয়। বর্তমান গুজরাট সরকার তাদের ক্ষমা করার সিদ্ধান্ত নেয় একটি কমিটি গঠন করে।৭৬ তম স্বাধীনতা দিবসে তাদের মুক্তি দেওয়া হল গোধারা সাব জেল থেকে।স্বাধীনতা দিবসে লালকেল্লার ভাষনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের নারীদের স্বাধীনতার কথা বললেন।

সারা বছর বিজ্ঞাপন করেন বেটি বাঁচাও,বেটি পড়াও।অথচ কাজে কি করলেন, স্বাধীনতা দিবসে ১১ জন ধর্ষককপ মুক্তি দিলেন!ছিঃ মোদী ছিঃ।এটাই কি আদর্শ হিন্দুরাষ্ট্রের নমুনা, যেখানে দলিত ও অহিন্দু নারীরা ধর্ষিতা হবেন বারবার কিন্তু বিচার পাবেন না।তাদের পরিবারকে নিশ্চিহ্ন করে দেওয়া হবে আর বিচারের বানী নিরবে নিভৃতে কাঁদবে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.