(রাজ্যে হু হু করে বাড়ছে করোনা। বুস্টার ডোজের জন্য হন্যে হয়ে ঘুরে বেড়ানো এক আমজনতা, তপন ভৌমিক লিখলেন তাঁর অভিজ্ঞতার কথা।)

বুস্টার চাই,কিভাবে পাই?

–তপন ভৌমিকঃ

প্রতিদিন খবরের কাগজে দেখছি কোভিড গ্রাফ উর্দ্ধমুখি। আর সরকার থেকে ডাক্তার প্রত্যেকেই আমাদের বিধিনিষেধ মেনে চলার উপদেশ দিচ্ছেন।

যাঁরা ষাটোর্ধ, তাদের বুস্টার ডোজ হচ্ছে। কিন্তু যাদের বয়স ষাটের নিচে,তাদের খবর কি ?? আমি মফঃস্বলে থাকি। এখানে কিছু লোক তিনশো থেকে সাতশো টাকায় বেসরকারি জায়গা থেকে বুস্টার ডোজ নিয়েছেন। কিন্তু তাদের সংখ্যা নগন্য। আমার পৌরসভা পরিস্কারভাবে বলে দিচ্ছে ডোজ নেই। আমার বাড়ি থেকে প্রায় পাঁচ কি.মি. দুরে আছে “সুরক্ষা “। একদিন ওখানে গেলাম,ওরা জানালো ডোজ নেই।পরে যোগাযোগ করতে বললো। আরেকদিন ফোন করলাম, নির্দিষ্ট একদিন যেতে বললো। গেলাম,কিন্তু দশজন হয়নি তাই ডোজ হবে না।

এবার প্রশ্ন হলো, যারা দোকানদার, অটো চালায়,ভ্যান চালায়,দিন আনি দিন খায়, চাষীভাই, একেবারে প্রান্তিক মানুষ যারা তারা কিভাবে দিনের পর দিন ঘুরে ডোজ নেবেন ?? তাদের পক্ষে সম্ভবও নয় এত পয়সা দিয়ে ডোজ নেওয়া।ধরা যাক এই মুহূর্তে দুই লাখ লোকের বুস্টার ডোজ নেবার সময় হয়েছে। তারমধ্যে পঞ্চাশ হাজার লোক বেশি পয়সা দিয়ে ডোজ নিয়েছেন।

বাকি দেড় লাখ লোক বিনা ডোজে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। এরাই তো করোনা ছড়িয়ে দিচ্ছে বা দেবে। কি রাজ্য সরকার কি কেন্দ্র সরকার কারও এব্যাপারে কোনো হেলদোল নেই। তাহলে মানুষ কাকে বিশ্বাস করবে ??

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.