মায়নামারে বিপন্ন গণতন্ত্র

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ মাত্র আট বছর মায়নামারে গণতন্ত্র স্থায়ী হল। ১৯৬২ সাল থেকে দীর্ঘ পাঁচ দশক ঐ দেশে চলছিল সামরিক বাহিনী জুন্টার সরকার। দীর্ঘ আন্দোলনের পর নির্বাচনে জয়ী হয় নোবেলজয়ী নেত্রী আয়ুং সান সুচি। সম্প্রতি হওয়া নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে নির্বাচিত সরকার সংসদের অধিবেশনের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন, ঠিক তখনই সেনা অভ্যুত্থান ঘটিয়ে ঐ দেশের সশস্ত্র বাহিনী এক বছরের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করল। তাদের দাবী সু চি এর দল ন্যাশানাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি নাকি ভোটে জালিয়াতি করেছে। তাই সংবিধান রক্ষা করার জন্য সু চি সহ একাধিক নেতাকে আটক করা হল। এই নির্বাচনে সু চির দল ৮৩ শতাংশ আসন পায় ও সেনা সমর্থিত দল গোহারা হারে। এখন সেনা নতুন করে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে, কূটনীতিক মহল যার পরিণতি সম্পর্কে নিশ্চিত । আবার দীর্ঘকালীন সামরিক শাসন ছাড়া গতি নেই। এই অবস্থার প্রতিবাদে ইয়াঙ্গনের রাস্তায় হাজার হাজার মানুষ পথে নেমেছেন। উল্লেখ্য গণতন্ত্রের দাবীতে মহাত্মা গান্ধীর পথে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করেই তিনি দেশে কিছুটা হলেও গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে পেরেছিলেন। এজন্য তাঁকে দীর্ঘদিন গৃহবন্দীও থাকতে হয়েছিল।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.