এরপরেও পদত্যাগ নয় কেন? এ তো বাংলা ও বাঙালির লজ্জা!

নগদ ২০ কোটি টাকা, ২০ টির মতো মোবাইল ইডি হানায় উদ্ধার হয়েছে বলেই খবর সামনে এসেছে। রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী তথা বর্তমান শিল্প মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাম সরাসরি ভাবে জড়িয়ে গেছে এই বিপুল পরিমাণ দুর্নীতির অভিযোগের সঙ্গে। পার্থ বাবুর ঘনিষ্ঠ কিছু মানুষের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে বিপুল পরিমাণ নগদ টাকা। তদন্ত চলছে। কিন্তু এই ব্যাপারে আশ্চর্যজনক ভাবে নিশ্চুপ রয়েছেন রাজ্য সরকার ও রাজ্যের শাসক দল । “যার নাম জড়িয়েছে তিনি উত্তর দেবেন” মার্কা কথা বলে দায় এড়িয়েছেন তৃণমূলের মুখপাত্র। মুখ্যমন্ত্রীরও মুখে কোনো রা’ নেই। স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলায় এই প্রথম কোনো শিক্ষামন্ত্রী ( বর্তমানে শিল্পমন্ত্রী)’র বিরুদ্ধে এমন ন্যাক্কারজনক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। অথচ তিনি এখনো বহাল তবিয়তে রাজ্য সরকারের মন্ত্রীসভা আলো করে বসে আছেন। তিনিও স্বপদে অনড়, আবার মন্ত্রীসভার কর্ণধার মুখ্যমন্ত্রীও তাঁকে পদত্যাগের নির্দেশ দিচ্ছেন না। এ লজ্জা কেবল মাত্র বাংলার শাসক দলের লজ্জা নয়, এ লজ্জা আপামর বাঙালির মাথা হেঁট করে দিচ্ছে সারা দেশের সামনে। মন্ত্রী মশাই, এখনো সময় আছে–পদত্যাগ করুন; মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী, এখনো সময় আছে–বরখাস্ত করুন এই মন্ত্রীকে। না’হলে ভাবীকাল কিন্তু প্রশ্নের পাহাড় নিয়েই সামনে দাঁড়িয়ে থাকবে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.