নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে প্রাক্তন বিধায়ক মোহিত সেনগুপ্ত।

নিজস্ব সংবাদদাতা, রায়গঞ্জঃ


প্রণয়ের বিবাহ, কিন্তু তাতেও পণের দাবি। মেয়ের পরিবার দাবি মেটাতে না পারায় প্রাণ বলি দিতে হলো রায়গঞ্জের দক্ষিণ সুশীহার গ্রামের মামণি বর্মনকে। আর এ খবর পেয়েই  দোষীদের শাস্তির দাবিতে সাধারণ মানুষকে সঙ্গে নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়লেন রায়গঞ্জের প্রাক্তন বিধায়ক তথা উত্তর দিনাজপুর জেলা কংগ্রেস সভাপতি মোহিত সেনগুপ্ত।

মোহিত বাবু অভিযোগ জানান মৃতা মামণির স্বামী অমল বর্মণ নৃশংস ভাবে তার স্ত্রীকে শারীরিকভাবে প্রহার করে এবং তারপরেই হার্ট অ্যাটাক করে মামণির মৃত্যু হয়। ওদিকে মামণির মৃতদেহের ময়নাতদন্তের কাজও প্রশাসনের ঢিলেমিতে আটকে থাকে। গ্রামবাসীদের কাছ থেকে এই খবর পেয়েই মোহিত বাবুর নেতৃত্বে কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ করলে ময়নাতদন্তের কাজ সুসম্পন্ন হয়। উল্লেখ্য কংগ্রেস কর্মীদের বিক্ষোভের পর পুলিশ অভিযুক্ত অমল বর্মণকে গ্রেফতার করে।

প্রাক্তন বিধায়ক মোহিত সেনগুপ্ত অভিযোগ করেন যে, সকল অভিযুক্তদের এখনো পুলিশ গ্রেফতার করেনি। দান-খয়রাতির রাজনীতি আমাদের সমাজে প্রতিবাদের ভাষাকে নিশ্চুপ করে দিচ্ছে বলেও মোহিত বাবু আক্ষেপ করেন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.