অমিত শাহ নিজের পূর্বপুরুষের নাগরিকত্বের কাগজ দেখাতে পারবেন? সোজাসাপটা প্রশ্ন সৌম্য আইচ রায়ের।

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ

ভোট আসছে তাই বিজেপি কিম্বা অমিত শাহরা আবার নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বাজার গরম করছে বলে অভিযোগ করলেন পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেসের আউটরিচ কমিউনিকেশন বিভাগের চেয়ারম্যান সৌম্য আইচ রায়। সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সৌম্য বাবু বলেছেন নাগরিকত্ব আইন এদেশে নতুন কিছু নয়, ১৯৫০ সালে এ আইন হয়েছিলো। বিজেপি নতুন করে দেশে বিভাজনের বিষ ছড়াতে চাইছে বলে এইসব আইনের গল্প ফাঁদছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। কটাক্ষের সুরে তিনি বলেন, যারা প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষাগত ডিগ্রি খুৃঁজে পায়না, তারা তাজমহলের নীচে শিবমন্দির খুঁজতে মরিয়া, এটাই হলো আর এস এস – বিজেপির মূল চরিত্র। এরা রাস্তা, জায়গা, স্টেশন, স্থাপত্য সব কিছুর নাম বদল করছে এই আট বছর ধরে কিন্তু দেশের বেহাল অর্থনীতিকে বদলাবার কোনো চেষ্টা এদের নেই বলেও তিনি উল্লেখ করেন। নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বলতে গিয়ে সৌম্য বাবু প্রশ্ন তোলেন, কেন ভূটানের অত্যাচারিত খ্রিস্টান, শ্রীলঙ্কার অত্যাচারিত তামিল হিন্দু –এঁদের কথা CAA আইনে নেই?

কংগ্রেস সরকারের আমলে তৈরি একের পর এক দেশীয় সম্পদ মোদি সরকার বিক্রি করে দিয়েছে এই আট বছরে, অথচ একটাও নতুন সম্পদ সৃষ্টি করতে পারেনি। সৌম্য বাবু কটাক্ষের সুরে বলেন, যে সন্তান বাপ-দাদার সম্পত্তি বেচে দিয়ে সেই টাকায় খায় তাকেই বলে ‘নালায়েক।সম্প্রতি পাকিস্তান থেকে আগত ৮০০ হিন্দু শরনার্থীরা কেন এদেশে নাগরিকত্ব না পেয়ে আবার পাকিস্তান ফিরে যেতে বাধ্য হলেন, আলোচনা প্রসঙ্গে এই প্রশ্নও তুলেছেন সৌম্য বাবু।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.