GST আজ বেঁচে থাকার সমস্যা

চন্দন ঘোষ চৌধুরীঃ

ভারতের অর্থনৈতিক অবস্থার গভীর অন্ধকারের GST অধ্যায় এই মুহূর্তে। স্বাধীনতা র পর থেকে আর্থিক নীতির পরিবর্তন হয়েছে, বিশেষ ভাবে ৯০র দশকের আমূল আর্থিক সংস্কার ও সামাজিক প্রকল্পের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের উন্নয়ন হয়েছে, সরকারী স্তরে ন্যায় ও উন্নয়ন বিস্তৃত হয়েছে দীর্ঘ জাতীয় কংগ্রেসের শাসনকালে।

GST (Goods and Services Tax) পরোক্ষ করের একটি রূপ, পরিষেবা কর বা ভ্যাট কিভাবে পরোক্ষ করের অনুরূপ। এটি ভারতীয় বাজারকে একরূপে কাজ করার লক্ষ্যে (Unified Tax Method) এবং সমগ্র ভারতের জন্য কর হিসাবে কাজ করবে। GST প্রস্তুতকারকের কাছ থেকে সকল পণ্য ও পরিষেবা সরবরাহের জন্য গ্রাহককে প্রয়োগ করা হবে।

এটি প্রতিটি পর্যায়ে প্রদেয় সকল করের প্রদান করবে, এইভাবে প্রতিটি পর্যায়ে মূল্য সংযোজন করের জন্য একটি ব্যবস্থা সরবরাহ করবে। কোন পণ্য বা পরিষেবাদি পাওয়ার শেষ পর্যায়ে ভোক্তা তার আগে ডিলারের দ্বারা প্রদেয় কর প্রদান করতে দায়ী এবং পূর্বে প্রদত্ত অন্যান্য করের জন্য সেট বন্ধ করতে সক্ষম হবেন।

একাধিক কর প্রদানে বাধ্য হচ্ছেন জনগণ এক দ্রব্য ক্রয়ের জন্য।IGST – ইন্টিগ্রেটেড জন্য দাঁড়িয়েছে GST. প্রতিটি আন্তঃরাজ্য পণ্য ও পরিষেবা সরবরাহের উপর কেন্দ্র দ্বারা এটি ধার্য করা হবে এবং পরিচালিত হবে।

CGST – এর অর্থ কেন্দ্রীয় GST। এটি কেন্দ্রের দ্বারা পণ্য এবং পরিষেবাগুলির আন্তঃরাষ্ট্রীয় সরবরাহের(Inter state supply) উপর কর ধার্য করা হবে।

SGST – স্টেট GST-র জন্য দাঁড়ায় এবং রাজ্যগুলি পণ্য ও পরিষেবাগুলির জন্য কর ধার্য করা হবে।

GST অধীনে এক হিসাবে কেন্দ্রীয় কর :সেন্ট্রাল এক্সাইজ ডিউটি।আবর্জনা দায়িত্ব (ঔষধি এবং টয়লেট প্রস্তুতি)।

এক্সিকিউটিভের অতিরিক্ত দায়িত্ব (বিশেষ গুরুত্বের পণ্য)।

এক্সিকিউশনের অতিরিক্ত দায়িত্ব (টেক্সটাইল এবং টেক্সটাইল পণ্য) ।কাস্টমস অতিরিক্ত দায়িত্ব ।

কাস্টমসের বিশেষ অতিরিক্ত দায়িত্ব ।পরিষেবা কর।

সেন্ট্রাল সারচারেজ এবং সেসগুলি যতদূর পণ্য ও পরিষেবাদি সরবরাহের সাথে সম্পর্কিত।SGST অধীনে কর:রাজ্য ভ্যাট।

সেন্ট্রাল সেলস ট্যাক্স।বিলাসিতা ট্যাক্স।এন্ট্রি ট্যাক্স ।বিনোদন এবং বিনোদন কর (স্থানীয় সংস্থাগুলি দ্বারা কর ব্যতীত)।বিজ্ঞাপন উপর কর।ক্রয় কর।Lotteries, পণ, এবং জুয়া উপর ট্যাক্সরাজ্য সারচার্জ এবং সেসগুলি যতদূর পণ্য ও পরিষেবাদি সরবরাহের সাথে সম্পর্কিত।

কিন্তু, কেন্দ্রীয় সরকারের ভুল অর্থনৈতিক সিদ্ধান্তে ও বারবার প্রবর্তিত করের পরিবর্তনের জন্য আজ এক ব্যাপক কর পরিকল্পনার সংকট দেখা দিছে।

১. প্রতিনিয়ত কর পরিবর্তন, দেশের মূল্য বাজারের সমস্যা।

২. রাজ্য ও কেন্দ্রের অর্থ ভাগের সমস্যা।

৩. রাজ্য তাদের প্রদেয় অর্থ সময় মতো না পাওয়া।

৪. ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসার সঠিক পরিকল্পনা করতে না পারা।

৫. আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ব্যবসার কর বিন্যাসের দীর্ঘ মেয়াদী সমস্যা।

আজ এই সন্ধিক্ষণে, GST করের নতুন বিন্যাস হল :

৫%, ১২%, ১৮% ও ২৮% । এই কর বিন্যাস এবং পণ্যদ্রব্য অন্তর্ভুক্তির নির্বাচন সঠিকভাবে পরিকল্পিত নয়।

হীরার ও মূল্যবান রত্ন ৩% এবং ০.২৫% মধ্য মূল্যবান পাথর কিন্তু নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য ১২% থেকে ১৮%।

এমনকি কিছু অতি প্রয়োজনীয় ঔষধের মূল্য ২৮% GST প্রদানে বাধ্য করা হয় সাধারণ মানুষকে। চাল, আটা, দুধ, দহী র মতো প্রাত্যহিক দ্রব্য GST ৫% যদি প্যাকেটজাত হয়, এক কৌতুকের বিষয়।

২৫ kg একলব্ধে বা প্যাকেটহীন পন্য এই করের বাইরে, অর্থ , মানুষকে বিপুল অর্থব্যয় বা কর দিতে বাধ্য করার সমতুল।

আজ এই পরিপ্রেক্ষিতে সকল মানুষের পাশে থেকে আমরা এই ব্যর্থ GST নীতির বিরুদ্ধে মানুষের কন্ঠস্বর হতে চাই; এই লক্ষে জনমতের শরিকও।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.